সজিনা পাতার উপকারিতা ও ব্যবহারবিধি | Food & Fitness

সজিনা পাতার উপকারিতা ও ব্যবহারবিধি

সজিনা পাতার উপকারিতা ও ব্যবহারবিধি সম্পর্কে আমরা আজকের পোস্টে আলোচনা করব।মরিংগা পাউডার (Moringa Powder) বা সজিনা পাতা গুড়াকে সুপার ফুড বলা হয়।

সজিনা পাতা সম্পর্কে কিছু তথ্য যা আপনাকে অবাক করবেঃ

  • সজিনা পাতায় কমলা লেবুর তুলনায় ৭ গুণ ভিটামিন-সি রয়েছে।
  • দুধের তুলনায় ৪ গুণ ক্যালসিয়াম এবং দুই গুণ আমিষ রয়েছে।
  • গাজরের তুলনায় ৪ গুণ ভিটামিন-এ পাওয়া যায়।
  • কলার চেয়ে ৩ গুণ পটাশিয়াম বিদ্যমান।

শুনে আরও অবাক হবেন যে সজিনার পাতা পানিকে আর্সেনিক মুক্তও করে।

আসুন এই অলৌকিক পাতার আরো কিছু বিস্ময়কর গুন জেনে নিইঃ

সজিনা পাতার উপকারিতা

১। সজিনার পাতা হৃদরোগীদের জন্যে ঠিক ওষুধের মত কাজ করে, উচ্চ রক্তচাপ কমায়, কোলেস্টেরল কমায়, ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রিত রাখে

২। এক টেবিল চামচ শুকনা সজিনা পাতার গুঁড়া থেকে ১-২ বছর বয়সী শিশুদের অত্যবশ্যকীয় ১৪% আমিষ, ৪০% ক্যালসিয়াম ও ২৩% লৌহ ও ভিটামিন-এ সরবরাহ হয়ে থাকে।

৩। দৈনিক ৬ চামচ সজনে পাতার গুঁড়া একটি গর্ভবর্তী বা স্তন্যদাত্রী মায়ের চাহিদার সবটুকু ক্যালসিয়াম ও আয়রন সরবরাহ করতে সক্ষম।

৪। সজিনা পাতা বহুমূত্র রোগের জন্যে অনেক উপকারী।

৫। সজিনার ডাটা থেকে সজিনার পাতা অধিক উপকারী।

৬। এলার্জি জনিত সমস্যা হলে সজিনার পাতা বেটে আক্রান্ত স্থানে প্রলেপ দিলে অনেক উপকার পাওয়া যায়।

৭। প্রতিদিন সকালে এক চামচ সজিনা পাতার শুকনা গুড়া পানিতে গুলিয়ে খেলে পেটের প্রদাহ, গ্যাস্ট্রিক থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৮। গেটেবাত এর জন্যে সজিনা পাতা বেটে হাটুতে বা যে স্থানে ব্যাথা হয় লাগিয়ে রাখলে ব্যাথা মুক্তি পাওয়া যায়।

আরো জানুনঃ বাত বা আর্থ্রাইটিস রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা

৯। সজিনার ফুল এ ও অনেক উপকার আছে যেমন: হজম শক্তি বাড়ায়, কোষ্ট কাঠিন্য দূর করে ইত্যাদি।

সজিনা-পাতা
সজিনা পাতা ও ডাটা

১০। সজিনার পাতা পোকার কামড়ের তাতক্ষনাৎ এন্টিসেপ্টিক হিসেবে অনেজ ভালো কাজ করে।

১১। সজিনার পাতা ক্রিমিনাশক হিসেবে কাজ করে। ক্রিমি সমস্যা করলে সজিনা পাতা গুড়ো করে অথবা অন্য খাবারের সাথে খান।

১২। সজিনা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, শরীর কে কর্মঠ রাখে। হাড় এর ক্ষমতা বৃদ্ধি করে যা আত্মরক্ষার ও ভূমিকা পালন করে।

১৩। সজিনা পাতা যকৃত ও কিডনির কাজ সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন করতে সাহায্য করে। রোগ প্রতিরোধ করে কিডনি ও লিভার সুস্থ রাখে।

১৪। সজিনা পাতা গর্ভবস্থায় মায়ের শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে এবং মায়ের বুকের দুধ বৃদ্ধি করে কোনো ধরনের পার্শ প্রতিক্রিয়া ছাড়া।

আরো পড়ুনঃ প্রসূতি মায়ের খাদ্য তালিকা, 15 দিনে ওজন কমানোর ডায়েট প্ল্যান

১৫। শরীরের ওজন কমাতে অনেক সাহায্য করে। ব্যায়াম এর পাশাপাশি সজিনা পাতা খান।

১৬। ডাক্তার ও বিশেষজ্ঞ দের মতে সজিনা পাতা ও ডাটা প্রায় ৩০০+ রোগের জন্যে উপকারী ও রোগ নিরাময় করে।

১৭। সজনে পাতা বাচ্চাদের পেট পরিষ্কার রাখে।

১৮। সজনে পাতা ত্বক ও চুলের জন্যে ও ভালো।

সজিনা পাতার ব্যবহার

সজিনা পাতার উপকারিতা জানার পর এবার চলুন জেনে নেয়া যাক রূপচরর্চায় আমরা কিভাবে এর ব্যবহার করতে পারি।

সজিনা পাতার উপকারিতা
সজিনা পাতার ব্যবহার

ত্বক এর জন্যে: ত্বকের জন্য সজিনা পাতার উপকারিতা রয়েছে। মধুর সাথে সজিনা পাতার রস বা শুকনো গুড়া মিশিয়ে মুখে লাগানে পারেন। এতে মুখের চামড়া টান টান হয়, পরিষ্কার হয় ব্রণ দূর হয়।

ত্বক এর ক্ষতস্থান এর মধ্যে লাগাতে পারেন পাতা বেটে বা গুড়া পেস্ট করে। সজনে পাতা ত্বক এর মধ্যে ক্ষত থাকলে তা ও সারায়।

চুলের জন্যে: চুলের জন্যও সজিনা পাতার উপকারিতা আছে। সজনে পাতার রস বা শুকনা গুড়া পেস্ট করে সাথে মধু মিক্স করে বা এমনি মাথায় দিয়ে ম্যাসাজ করুন। এতে চুল পড়া কমবে। মাথার ত্বক পুষ্টি গুণ পাবে। মাথা ঠান্ডা থাকবে। চুল সুন্দর ও ঘন হবে।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (7 Reviews)

2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *