মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায় জানতে পারবেন এই পোস্টে। রুপচর্চায় মুলতানি মাটির ব্যবহার সম্পর্কে আমরা কম বেশি সবাই হয়তো জানি। মুলতানি মাটি শুধু এখন কার সময়ে নয়। প্রাচীন কাল থেকেই রুপচর্চায় মুলতানি মাটির ব্যবহার হয়ে আসছে।

যারা প্রতিনিয়ত সৌন্দর্য্য চর্চা করে থাকেন বা এর সাথে জড়িত তাদের কাছে মুলতানি মাটি নতুন কিছু নয়। এর বহুবিধ উপকার ও গুণাবলির জন্য এটি সৌন্দর্য প্রিয় মানুষের কাছে অতি পরিচিত একটি নাম।

পাকিস্তানের মুলতান প্রদেশে এই মাটি পাওয়া যায় বলে এর নাম মুলতানি মাটি। ইংরেজিতে Fuller’s Earth নামে পরিচিত এই মাটি ম্যাগনেশিয়াম ক্লোরাইড সমৃদ্ধ। স্কিন ভালো রাখার জন্য যতগুলো প্রাকৃতিক উপাদান আছে তার মধ্যে মুলতানি মাটি বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।

কোমল ও সতেজ ত্বক পাওয়া থেকে শুরু করে মুখের অবাঞ্চিত কালো দাগ এবং রোদে পোড়া ত্বক ঠিক করতে দারূন কার্যকরী এই মুলতানি মাটি। এটি ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত ভাব কমিয়ে ফেলতে সাহায্য করে। যার কারণে আমাদের মুখে ব্রণের প্রাদুর্ভাব অনেক কমে যায়। এছাড়াও ব্রণের দাগ বা যে কোনো কালো দাগ সারিয়ে তুলতে মুলতানি মাটির জুড়ি নেই। ত্বকের ইলাস্টিসিটি ধরে রাখতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করে এই মুলতানি মাটি। সেই সাথে ত্বকে হেলদি গ্লো নিয়ে আসে এবং ত্বকের রং উজ্জ্বল করে।

ঘরোয়া রুপচর্চায় মুলতানি মাটি সম্পূর্ণ নিরাপদ ও কার্যকরী। কিভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে ত্বকের যত্নে মুলতানি মাটি সঠিকভাবে ব্যবহার করতে হয় সেই বিষয়েই আমরা এখন আলোচনা করব। তাহলে আসুন মুলতানি মাটির সঠিক ব্যবহার ও উপকারিতা সম্পর্কে আমরা জেনে নিই।

ব্রণ দূর করতে মুলতানি মাটির ব্যবহার

ব্রণ বা একনি সমস্যায় আমরা সবাই কম বেশি ভূগে থাকি। অনেকের ত্বকে অনেক বড় বড় ব্রণ হয়ে থাকে ঠিক গোটার মত যা অনেক শক্ত ও ব্যাথা যুক্ত হয়ে থাকে। আবার অনেকের ত্বকে ছোট ছোট গুড়গুড়ি বা র‍্যাশ হয়ে থাকে, যা চুল্কায় এবং লাল হয়ে যায়। ব্রণ বা একনি যা ই হোক না কেন তা কোনোটাই আমাদের ত্বকের জন্য কাম্য নয়। এই ব্রণের সমস্যার সমাধানের জন্য মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক হতে পারে একটি জাদুকরী উপাদান। বিভিন্ন পদ্ধতিতে আমরা এই মুলতানি মাটির ফেস প্যাক তৈরি করতে পারি। পদ্ধতি গুলো হলোঃ

See also  রুপচর্চায় গ্রিন টি

পদ্ধতি ১ঃ এই ফেসপ্যাক তৈরি করতে লাগবে দু চামচ মুলতানি মাটি। এরপর একটি শশা, কিছু পুদিনা পাতা, Alovera জেল এক সাথে ব্লেন্ড করে নিতে হবে। ব্লেন্ড করা হয়ে গেলে মিশ্রণ টিকে ছাকনির সাহায্যে ছেকে রস বের করে নিতে হবে। এরপর দু চামচ মুলতানি মাটির সাথে ৩-৪ চামচ পরিমাণ ছেকে নেয়া রস নিয়ে ভালোভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। মিশ্রন টি ত্বকে লাগিয়ে রেখে দিতে হবে ২০ মিনিট। সপ্তাহে ২ দিন এই ফেস প্যাক টি ব্যবহার করতে হবে একটি ব্রন মুক্ত ত্বক পেতে।

পদ্ধতি ২ঃ ২ চামচ মুলতানি মাটির সাথে যে কোনো Essential oil যেমন- Tea tree oil মেশাবো ২-৩ ফোটা সাথে পরিমাণ মতো পানি। ভালো ভাবে মিশিয়ে নিয়ে মুখে লাগিয়ে রেখে দিতে হবে ১০-১৫ মিনিট। Tea tree Oil ব্রণ দূর করার জন্য একটি ম্যাজিকাল উপাদান।

পদ্ধতি ৩ঃ মুলতানি মাটির সাথে গোলাপ জল মিশিয়ে প্যাক তৈরি করে মুখে লাগাতে পারেন। এই প্যাক টি মুখের তেল নিয়ন্ত্রণে খুব ভালো কাজ করে। যার ফলে ব্রণ হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়

পদ্ধতি ৪ঃ ২ চামচ মুলতানি মাটির সাথে নিম পাতা বাটা বা নিম পাউডার মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে মুখে ১০-১৫ লাগিয়ে রেখে দিতে হবে।তারপর শুকিয়ে গেলে নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। ব্রন দূর করতে এই প্যাক টি খুবই কার্যকরী। এই প্যাক টি খুব তাড়াতাড়ি ব্রন শুকিয়ে ফেলতে সাহায্য করে।

মুলতানি মাটি দিয়ে ত্বক ফর্সা করার উপায়

ফর্সা হতে আমরা কে না চাই। দেখা যায় এই কাংখিত ফর্সা রং এর জন্য আমরা বাজার থেকে অনেক রং ফর্সা কারি ক্রিম কিনে থাকি যা আমাদের স্কিন এর জন্য অনেক ক্ষতির কারণ হয়ে দারায়। কিন্তু আমাদের এই মুলতানি মাটির সাথে কিছু প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে আমরা সহজেই ন্যাচারাল ভাবে ত্বক ফর্সা করতে পারি। যা কোনো রকম ক্ষতি ছাড়াই আমাদের স্কিন ভেতর থেকে উজ্জ্বল ও ফর্সা করে তুলবে।

See also  ব্রণ দূর করার উপায়ঃ ঘরোয়া পদ্ধতি

আসুন মুলতানি মাটির সাহায্যে স্থায়ী ভাবে ফর্সা হওয়ার কয়েকটি ফেস প্যাক সম্পর্কে জেনে নিই।

পদ্ধতি ১ঃ ১ চামচ মুলতানি মাটির সাথে কস্তুরি হলুদ হলুদ বাটা নিয়ে ভালো ভাবে মিশিয়ে নিতে হবে। পেস্ট টি ভালো ভাবে মেশানো হয়ে গেলে মুখে লাগিয়ে নিতে হবে। রেখে দিতে হবে ১৫-২০ মিনিট। ১৫-২০ মিনিট পরে নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে ৩ দিন এই ফেস প্যাক টি ব্যবহার করা যেতে পারে। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই পরিবর্তন লক্ষ করতে পারবেন। ফর্সা হওয়ার জন্য এই প্যাক টি আসলেই খুবই কার্যকরী।

পদ্ধতি ২ঃ তৈলাক্ত ত্বকের জন্য ১ চামচ মুলতানি মাটির সাথে ৪/৫ ফোটা লেবুর রস দিতে হবে এবং সাথে দিতে হবে গোলাপজল বা নরমাল পানি। উপকরণ গুলো খুব ভালো ভাবে মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। মুখে লাগিয়ে রাখতে হবে ১০-১৫ মিনিট।

লেবুর রসে রয়েছে ভিটামিন সি যা প্রাকৃতিক ভাবে আমাদের ত্বককে উজ্জ্বল করতে সাহায্য করে। এই ফেস প্যাক টি সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহার করতে হবে একটি ফর্সা গ্লোয়িং ত্বক পাওয়ার জন্য।

পদ্ধতি ৩ঃ শুষ্ক ত্বকের জন্য ২ চামচ মুলতানি মাটির সাথে নিয়ে নিতে হবে পরিমাণ মতো দুধ৷ এক্ষেত্রে ছাগলের দুধ ব্যবহার করলে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। তবে গরুর দুধ হলেও চলবে। মুলতানি মাটি ও দুধ ভালো ভাবে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। এই ফেস প্যাক টি একদিকে যেমন আমাদের ত্বক ফর্সা করতে সাহায্য করে অন্য দিকে শুষ্ক ত্বকের ফেকাসে ভাব কমাতেও দারুণ কাজ করে।

সপ্তাহে ২-৩ দিন এই প্যাক টি ব্যবহার করে আমরা পেতে পারি উজ্জল ও মসৃন ত্বক।

ত্বককে প্রাকৃতিক ভাবে ময়েশ্চারাইজ করতে

প্রাকৃতিক ভাবে ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করতে ২ চামচ মুলতানি মাটির সাথে নিতে হবে এক চামচ মধু। মধু প্রাকৃতিক ভাবে আমাদের ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করতে সাহায্য করে, এছাড়াও এতে রয়েছে এন্টিব্যাক্টেরিয়াল প্রোপার্টি যা আমাদের ত্বককে ব্রনের হাত থেকে রক্ষা করে।
মধু এবং মুলতানি মাটির সাথে মেশাতে পারি এক চামচ দুধ বা টক দই। এই প্যাক ত্বকে ম্যাজিকের মতো কাজ করবে এবং ত্বকের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান করবে।

See also  বেসন ও লেবুর ফেসপ্যাক বানানো এবং ব্যবহারের নিয়ম

যে কোনো কালো দাগ থেকে মুক্তি পেতে

ব্রনের সমস্যা থেকে সহজে মুক্তি পাওয়া গেলেও এই ব্রন যেই দাগ রেখে যায় তা নিয়ে আমাদের ভুগতে হয় বছরের পর বছর। তবে কিছু প্রাকৃতিক উপাদান নিয়মিত ব্যবহারের ফলে এই দাগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

মুলতানি মাটির সাথে আলুর রস মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিতে হবে। পেস্ট টি মুখে লাগিয়ে রেখে দিতে হবে ১৫ -২০ মিনিট। ২০ মিনট পর নরমাল পানি দিয়ে ধুয়ে নিতে হবে।

আলু তে রয়েছে ন্যাচারাল ব্লিচিং প্রোপার্টিস যা আমাদের ত্বক থেকে পিম্পল বা ব্রণের কালো দাগ দূর করতে ভীষণ সাহায্য করে।

মুলতানি মাটির অপকারিতা

সঠিক উপায়ে মুলতানি মাটি ব্যবহার না করলে ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। ব্যবহার এর সঠিক নিয়ম না জানলে উপকারের থেকে অপকারই হবে বেশি। তাই মুলতানি মাটি ব্যবহারের সাবধানতা সম্পর্কে জেনে নেয়া উচিত। কয়েকটি সাবধানতা উল্লেখ করা হলোঃ

১) ত্বকের ধরন বুঝে উপযুক্ত উপাদান মিশিয়ে মুলতানি মাটি ব্যবহার করতে হবে।

২) অতিরিক্ত শুষ্ক ত্বকে মুলতানি মাটি ব্যবহার না করাই ভালো। এতে স্কিন আরও শুষ্ক ও প্রানহীন দেখা যায়।

৩) ওয়েলি স্কিনেও মুলতানি মাটি প্রতিদিন ব্যবহার করা ঠিক না এতে বলিরেখা বা চামড়া কুচকে যাওয়ায় সম্ভাবনা থাকে।

৪) সপ্তাহে ২-৩ দিন মুলতানি মাটি ব্যবহার করতে হবে।

৫) মুলতানি মাটি চোখের একদম নিচে লাগানো উচিৎ নয়। চোখের নিচের চামড়া পাতলা হওয়ায় এতে খুব সহজেই ভাজ পরে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
মুলতানি মাটি আমাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি এবং ব্রন দূর করা সহ হাজারো সমস্যা সমাধানের একটি জাদুকরী উপাদান। আমাদের উচিৎ ত্বকের ধরন বুঝে, যযথাযথ উপায়ে মুলতানি মাটি আমাদের ত্বকে ব্যবহার করা।

5/5 - (46 Reviews)
foodrfitness
foodrfitness
Articles: 234

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *