মানব মস্তিষ্ক কত জিবি

আমরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মোবাইলে মেমোরি অথবা ল্যাপটপ কত গিগাবাইট কম্পিউটার হার্ডডিক্স কত টেরাবাইট এসব নিয়ে কথা বলে থাকি। কিন্তু কখনো কি ভেবে দেখেছেন  মহান স্রষ্টা (আল্লাহ) আমাদের মস্তিষ্ককে কত জিবি  ধারণক্ষমতা দিয়েছে । এটা আমরা মাঝেমধ্যে শুনি যে আমাদের ব্রেন  কম্পিউটারের  মত অপারেটর করে কিন্তু সত্য হচ্ছে  মানব মস্তিষ্ককে মাথায় রেখে কম্পিউটার ডেভলপ করা হয়েছিল। মানুষের মস্তিষ্ক কম্পিউটারের মধ্যে যদি মিল থাকে তাহলে এ প্রশ্ন আসতে পারে মানুষের মস্তিষ্ক কত জিবি ? সহজ ভাবে বলতে গেলে মানুষের মস্তিষ্ক কত জিবি বা কত জিবি ডাটা মানুষের মস্তিষ্কে রাখা যায় ?

যদিও নিউরো সায়েন্টিস্ট এ বিষয়ে ভিন্নমত প্রকাশ করেন। তবে এখান থেকে একটি কমন হিসাব পাওয়া যায়। মস্তিষ্কের স্মৃতির স্পেস  নিয়ে গবেষণায় নর্থ-ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি সাইকোলজির অধ্যাপক ড. পল রেবার উল্লেখ করেছেন, যে মানুষের মস্তিস্কে একশো কোটি বা এক বিলিয়ন নিউরন রয়েছে। প্রতিটি নিউরন একে অপরের সাথে 1000 টি সংযোগ করে, যার গাণিতিক সংখ্যা এক ট্রিলিয়ন এরও বেশি।

বিজ্ঞানীরা সঠিক হিসাব দিতে পারেনি তবে এ বিষয়ে সবাই একমত যে সারাজীবনেও আপনি আপনার মস্তিষ্ক সম্পূর্ণ পূরণ করতে পারবেন না। গবেষকেরা বলছেন আপনি যদি 30 লাখ ঘন্টা অথবা 342 বছর একটানা ভিডিও ধারণ করতে থাকেন, তাহলেও আপনার মস্তিষ্ক সম্পূর্ণ পূরণ হবে না।

নিউরন হল মানব মস্তিষ্কের প্রধান উপাদান। মস্তিষ্কে মোট 1000 কোটি নিউরন রয়েছে। প্রত্যেকটি নিউরন একে অপরের সাথে 1000 সংযোগ তৈরি করে। যার গাণিতিক সংখ্যা 1 ট্রিলিয়ন এরও বেশি। গবেষকরা আরও বলেছেন প্রত্যেকটি নিউরন অসংখ্য মেমোরি ধারণ করতে সক্ষম। যদি প্রত্যেকটা নিউরন আলাদা আলাদাভাবে একটি করে মেমোরি ধারণ করে থাকে তবু একজন মানুষ তার মৃত্যুর আগে মস্তিষ্ক ডাটা দারা সম্পূর্ণ পূরণ করতে পারবে না। ব্রেনের মেমোরি ধারণ ক্ষমতা 1 মিলিয়ন জিবি 10 লাখ গিগাবাইট। আর আমরা তো জানি,

বাইটঃ 1 বাইট = 8 বিট

কিলোবাইটঃ 1 কেবি = 8,192 বিট,

1 কেবি = 1,024 বাইট

মেগাবাইট (এমবি) 1 এমবি = 1024 কেবি

গিগাবাইট (জিবি) 1 জিবি = 1024 এমবি

টেরাবাইট (টিবি) 1 টিবি = 1024 জিবি

এখন প্রশ্ন আসতে পারে, মানব মস্তিষ্কের ধারণ ক্ষমতা যদি সবার একই হয়ে থাকে হয়ে থাকে তাহলে ছাত্র-ছাত্রীরা পরীক্ষা কেন ভিন্ন ভিন্ন ফলাফল করে ? কেন সবার ফলাফল এক হয় না অথবা একটি বিষয় একাধিক ব্যক্তি কেন একই সময়ের জন্য মনে রাখতে পারে না।

এর উত্তর হলো মনোযোগ, একই বিষয় বিভিন্ন ব্যক্তি বিভিন্নভাবে নিয়ে থাকে। কোন নির্দিষ্ট বিষয়ে একাধিক ব্যক্তিকে কাজ করতে কাজ দিলে সবাই একই পরিমাণ কাজ করবে না। কারণ কাজটির গুরুত্ব এক জনের কাছে একেক রকম অথবা গুরুত্ব একই হলেও  কর্মরত ব্যক্তি দৈহিকভাবে  কাজের সাথে যুক্ত থাকলেও মানসিক ভাবে অন্য কোন চিন্তায় মগ্ন থাকে। এই জন্য সবার মনে রাখার ক্ষমতা একই হলেও একই বিষয়ে সবার গুরুত্বের অভাবে মনে রাখতে পারে না।

5/5 - (10 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published.