চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম - How To Apply Hair Oil | Food & Fitness

চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম – How To Apply Hair Oil

চুলের সঠিক পুষ্টি প্রদানের জন্য তেল একটি অপরিহার্য উপাদান। তবে অনেকেই চুলে তেল ব্যবহারের সঠিক নিয়ম জানেন না, যার কারণে তারা সঠিকভাবে চুলের যত্ন নিতে পারেন না। এই কারণেই আজকের পোস্টে আমরা চুলে কখন তেল ব্যবহার করতে হবে এবং কীভাবে করতে হবে এই দুটি সম্পর্কেই তথ্য নিয়ে এসেছি। এর সাথে, আপনি এখানে তেল প্রয়োগের সময় যে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে সে সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

কেন চুলে তেল ব্যবহার করতে হবে?

নিম্নলিখিত কারণে চুলে তেল লাগাতে হবে-

১. ভাল রক্ত সঞ্চালনের জন্যঃ- চুলে তেল ব্যবহার করলে তা আপনার মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন উন্নত করে এবং একই সাথে চুলের গোড়া মজবুত করে। তাই, সপ্তাহে একবার তেল দিয়ে চুল ম্যাসাজ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। মনে রাখবেন যে চুলের জন্য একই তেল ব্যবহার করুন, যা আপনার মাথার ত্বকের জন্য উপযুক্ত।

২. চুল লম্বা করার জন্যঃ- চুলের বৃদ্ধির জন্য তেল প্রয়োগ করার পরামর্শ দেওয়া হয়। জার্নাল অফ কেমিক্যাল অ্যান্ড ফার্মাসিউটিক্যাল রিসার্চ অনুসারে, যদি নিয়মিত চুলে তেল মালিশ করা হয়, তবে এটি চুল দ্রুত বৃদ্ধি করে।

৩. খুশকি থেকে মুক্তিঃ- তেল খুশকির সমস্যা থেকেও মুক্তি দিতে পারে তেল। যেমন নারিকেল তেলে অ্যান্টি-ফাঙ্গাল এবং অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা খুশকি সৃষ্টিকারী ছত্রাক এবং ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধি রোধ করতে সাহায্য করে।

৪. চুল সিল্কি করেঃ- তেল শুধুমাত্র চুলের পুষ্টি যোগায় না, এর উজ্জ্বলতা বাড়াতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ন্যাশনাল সেন্টার ফর বায়োটেকনোলজি ইনফরমেশনের ওয়েবসাইটের একটি গবেষণা অনুসারে, খনিজ তেল দিয়ে চুল ম্যাসাজ করলে এর উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।

৫. চুলকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করেঃ- তেল চ্যাম্পি চুলকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে পারে। আসলে, হাইগ্রোয়াল ফ্যাটিগ অর্থাৎ প্রদাহের সমস্যাকে ক্ষতিগ্রস্থ চুলের প্রধান কারণ হিসাবে বিবেচনা করা হয়। সেই সঙ্গে কিছু তেল চুলে শোষিত পানির পরিমাণ কমাতে পারে, যা প্রদাহ কমায় এবং ড্যামেজ চুলের সমস্যা কমাতে পারে।

টিপস: চুলের ভালো পুষ্টির জন্য সপ্তাহে অন্তত দুইবার এবং তিনবারের বেশি চুলে তেল লাগান।

আরো পড়ুনঃ চুল থেকে খুশকি দূর করার উপায়, 8 টি খাবার যা চুল পড়ার কারণ

কিভাবে আপনার চুলে তেল লাগাবেন – 6 ধাপ – How To Oil Your Hair In 6 steps

চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম নিম্নরূপ:

তেল নির্বাচনঃ- প্রথমত, আপনার চুল এবং মাথার ত্বকের ত্বক অনুযায়ী তেল নির্বাচন করুন। তারপর সেই তেল গরম করুন। এর পরে, এটিকে কিছুটা ঠান্ডা হতে দিন এবং আপনার আঙ্গুলের সাহায্যে চুলের গোড়ায় লাগান। তেলটি শিকড়ে ভালোভাবে শোষিত হয়ে গেলে, 10 থেকে 12 মিনিটের জন্য সমস্ত চুলে ম্যাসাজ করুন।

হাতের তালু ব্যবহার এড়িয়ে চলুনঃ- তেল লাগানোর সময় খেয়াল রাখুন যেন তালু ব্যবহার না হয়। হাতের তালু দিয়ে চুল ঘষলে চুলের ক্ষতি হতে পারে। তাই সবসময় আঙ্গুল দিয়ে তেল লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করুন।

একটি ভেজা তোয়ালে মাথা মুড়িয়ে নিনঃ- চুলে তেল ভালোভাবে লাগানো হয়ে গেলে এক বালতি জল হালকা গরম করুন। এতে একটি তোয়ালে ভিজিয়ে হালকাভাবে চেপে নিন। তারপর সেই তোয়ালে চুলে জড়িয়ে নিন। এতে করে মাথার ত্বকের ছিদ্র খুলে যায় এবং তেল শোষিত হয়।

এক ঘণ্টা পর শ্যাম্পু করুনঃ- চুলে তেল লাগানোর পর এক ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এরপর শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। আপনি চাইলে রাতে তেল মাখিয়ে রেখে পরদিন সকালে চুল ধুয়ে ফেলতে পারেন।

ঈষদুষ্ণ পানি দিয়ে ধুয়ে নিনঃ- শ্যাম্পু করার জন্য সর্বদা হালকা গরম জল ব্যবহার করুন। এটি চুলের আরও উপকার করতে পারে।

সপ্তাহে অন্তত একবার এটি করুনঃ- চুলকে সুস্থ রাখতে নিয়মিত যত্ন নেওয়া প্রয়োজন। তাই সপ্তাহে একবার চুলে তেল লাগান।

আপনার চুলে তেল দেওয়ার সময় সাধারণ ভুল

চুলে তেল দেওয়ার সময় যে বিষয়গুলো মাথায় রাখবেন:

• চুলে কখনই অতিরিক্ত তেল লাগাবেন না। এছাড়াও মনে রাখবেন তেল যেন বেশি গরম না হয়, এতে চুলের ক্ষতি হতে পারে।
• তেল লাগানোর সময় সবসময় হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন।
• মাথার ত্বকের পরিবর্তে চুলের গোড়া থেকে শেষ পর্যন্ত তেল লাগান।
• আপনি যদি বাইরে যাওয়ার পরিকল্পনা করেন তবে চুলে তেল লাগান না।
• চুলে তেল একদিনের বেশি রাখবেন না।

চুলে তেল দেয়ার জন্য ভেজা বা শুকনো চুল – কোনটি সেরা?

ভেজা ও শুষ্ক চুলে তেল লাগালে কোনটি ভালো তা নিয়ে যদি বলি, তাহলে জানুন যে শুষ্ক চুলে তেল মাখা বেশি সঠিক। আসলে চুল ভিজে গেলে এর শিকড় খুব দুর্বল হয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতিতে তেল লাগার কারণে চুল সহজেই ভেঙে যেতে পারে।

চুলে তেল কতক্ষণ রেখে দেওয়া উচিত?

সারারাত চুলে তেল রেখে দিতে পারেন। সেই সঙ্গে চুলে তেল রেখে দেওয়া যেতে পারে সর্বোচ্চ একদিন। এর বেশি সময় চুলে তেল রেখে দিলে চুলে ময়লা লেগে যায়, যার কারণে চুল দুর্বল হয়ে যায়।

নোংরা চুলে তেল দিলে কী হয়?

নোংরা চুলে তেল লাগালে তা মাথার ত্বকে ময়লা লেগে যেতে পারে, যা মাথার ত্বকের ছিদ্রগুলোকে আটকে দিতে পারে। এ কারণে তেল চুলের গোড়ায় পৌঁছাতে পারবে না এবং পুষ্টিও পাবে না। ফলে চুল দুর্বল হয়ে ভেঙে যেতে পারে।

সতর্কতা:

মাথার ত্বক অনুযায়ী চুলে সবসময় তেল লাগান। এটি না করলে, সেই তেল আপনার মাথার ত্বকের ক্ষতি করতে পারে, যার ফলে চুল পড়ে যেতে পারে।

নোংরা চুলে তেল দিলে কি হয়?

নোংরা চুলে তেল লাগালে তা মাথার ত্বকে ময়লা লেগে যেতে পারে, যা মাথার ত্বকের ছিদ্রগুলোকে আটকে দিতে পারে। এ কারণে তেল চুলের গোড়ায় পৌঁছাতে পারবে না এবং পুষ্টিও পাবে না। ফলে চুল দুর্বল হয়ে ভেঙে যেতে পারে।

অত্যধিক তেল কি চুলের ক্ষতি করে?

হ্যাঁ, অতিরিক্ত তেল চুলের ক্ষতি করে। আসলে, অতিরিক্ত তেলের কারণে মাথার ত্বকে আর্দ্রতা বাড়তে পারে। এ কারণে মাথার ত্বকে ব্রণ বা ব্রণের সমস্যা হতে পারে।

কেন আপনি তেল মাখার পর চুল পড়া লক্ষ্য করেন?

চুলে তেল দেওয়ার পর মাথার ত্বক আলগা হয়ে যায়, যার কারণে দুর্বল চুল পড়তে শুরু করে। এ ছাড়া চুলে লাগানো তেলে অ্যালার্জি থাকলে এমন পরিস্থিতিতে তেল লাগালে চুল পড়ে যেতে পারে।

আপনার কি প্রতিদিন চুলে তেল দেওয়া উচিত?

না, প্রতিদিন চুলে তেল দেওয়া উচিত নয়।

উপসংহার

চুলে তেল দেয়ার উপকারিতা অনেক। তবে এটি তখনই কার্যকর প্রমাণিত হয় যখন চুলে তেল দেয়ার সঠিক নিয়ম মানা হয়। এই পোস্টে, আমরা এই সমস্ত বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে ব্যাখ্যা করেছি, কখন এবং কীভাবে চুলে তেল ব্যবহার করতে হয়।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (20 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *