টক দই দিয়ে ফর্সা ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে ৫টি ফেসপ্যাক

টক দই দিয়ে ফর্সা ও সুন্দর ত্বক পাওয়ার উপায়ঃ আপনার ত্বক যদি রোদ, ধুলোবালি এবং দূষণের কারণে তার উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে, তবে অবশ্যই টক দই দিয়ে তৈরি এই সেরা ফেসপ্যাকগুলি লাগান।

এমন অনেক জিনিস আছে যা আমরা আমাদের প্রতিদিনের রুটিনে খেয়ে থাকি, যার উপকারিতা সম্পর্কে আমরা পুরোপুরি অবগত নই। তেমনই একটি খাদ্য উপাদান হল টক দই। আমরা সবাই জানি যে টক দই খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে।

কিন্তু আপনি কি জানেন যে ফেসপ্যাক তৈরিতেও টক দই ব্যবহার করা হয়। এতে উপস্থিত ল্যাকটিক অ্যাসিড, জিঙ্ক এবং মিনারেল শরীরের জন্য খুবই উপকারী সেই সঙ্গে ত্বক ফর্সা করতে খুবই কার্যকরি। টক দই দিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক লাগালে ত্বকের অনেক সমস্যা যেমন ট্যানিং, ব্রণ, বলিরেখা এবং দাগ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। গরমে টক দই ফেসপ্যাক লাগালে ত্বকে শীতলতা আসে এবং মুখের উজ্জ্বলতাও বাড়ে।

টক দইয়ের অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য স্বাস্থ্যকর ত্বক বজায় রাখতে সাহায্য করে। আসুন জেনে নিই কিভাবে টক দই দিয়ে ফেসপ্যাক তৈরি করবেন-

টক দই এবং মুলতানি মাটির ফেস প্যাক

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য মুলতানি মাটি খুবই উপকারী। এর সঙ্গে টক দই মিশিয়ে লাগালে ট্যানিংয়ের সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

উপাদানঃ

• টক দই- ১ চা চামচ
• মুলতানি মাটি – 2 চা চামচ
• অ্যালোভেরা জেল- ১ চা চামচ

এভাবে তৈরি করুনঃ

• একটি পাত্রে এই তিনটি উপাদান মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
• এখন এটি আপনার মুখ এবং ঘাড়ে লাগান এবং কমপক্ষে 15 মিনিট রাখুন।
• তারপর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে গোলাপজল মুখে লাগান।

আরো পড়ুনঃ মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

টক দই এবং ওটস ফেসপ্যাক

ওটস আমাদের ত্বকের জন্য একটি দুর্দান্ত প্রাকৃতিক ক্লিনজার হিসাবে কাজ করে। এর সাথে টক দই মিশিয়ে লাগালে ত্বকের মৃত কোষ দূর হয়।

উপাদানঃ

• টক দই – 2 টেবিল চামচ
• ওটস পাউডার – 1 টেবিল চামচ

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

• এই ফেসপ্যাকটি তৈরি করতে ওটস পাউডার ব্যবহার করুন।
• ওটস পাউডারে টক দই মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে মুখে ও ঘাড়ে লাগিয়ে হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন।
• প্রায় 15 মিনিট পর পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
• এই ফেসপ্যাকটি লাগালে ত্বকের ময়লা পরিষ্কার হয় এবং মুখের উজ্জ্বলতা বাড়ে।

টক দই এবং টমেটো ফেস প্যাক

টক দই এবং টমেটোর ফেসপ্যাক ত্বকের পিএইচ এর ভারসাম্য বজায় রাখতে সাহায্য করে। এটি প্রয়োগের মাধ্যমে ত্বককে গভীর থেকে পরিষ্কার করা যায়। এছাড়াও ব্রণ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

উপাদানঃ

• অর্ধেক টমেটোর রস
• টক দই- ১ চা চামচ
• লেবুর রস – কয়েক ফোঁটা

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

• উপরে উল্লিখিত সমস্ত উপাদান মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন।
• এবার ব্রাশের সাহায্যে মুখে ও ঘাড়ে ভালো করে লাগান।
• 10-15 মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
• এই ফেসপ্যাকটি লাগালে ত্বকের ট্যানিং দূর হয় এবং ত্বকের উজ্জ্বলতাও বৃদ্ধি পায়।

আরো পড়ুনঃ মুখে টমেটো লাগানোর উপকারিতা, টমেটোর উপকারিতা ও অপকারিতা এবং খাওয়ার নিয়ম

ডিম এবং টক দই ফেস প্যাক

ডিম-টক দই ফেসপ্যাক লাগালে ত্বকে উজ্জ্বলতা আসে এবং একই সঙ্গে ত্বকের রংও ভালো হয়।

উপাদানঃ

• 1টি ডিমের সাদা অংশ
• বেসন- ১ চা চামচ
• 1টি ছোট কলা
• টক দই – 2 চা চামচ

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

• প্রথমে কলা ম্যাশ করে নিন। তারপর এতে উল্লেখিত অন্যান্য উপাদান মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন।
• এবার মুখে ও ঘাড়ে ভালো করে লাগিয়ে শুকিয়ে গেলে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।
• প্রতিদিন এই ফেসপ্যাক লাগালে মুখে উজ্জ্বলতা আসে। এছাড়াও ত্বক নরম ও মসৃণ হয়।

টক দই এবং মেথি একটি অ্যান্টি- এজিং ফেসপ্যাক হিসাবে কাজ করে । এই ফেসপ্যাকটি লাগালে এটি ত্বকের আলগা ভাব দূর করে এবং ত্বকের উজ্জ্বলতাও বাড়ায়।

উপাদানঃ

• টক দই- ১ চা চামচ
• মেথি গুঁড়া – 1 চা চামচ
• বাদাম তেল – 1/2 চা চামচ
• গোলাপ জল – 1/2 চা চামচ

ব্যবহার পদ্ধতিঃ

• এই উল্লিখিত উপাদানগুলি একটি পাত্রে রাখুন এবং ভালভাবে মেশান।
• তারপর হালকা হাতে সারা মুখে লাগিয়ে ১০ মিনিট রেখে দিন।
• ম্যাসাজ করার সময় স্বাভাবিক পরিষ্কার জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

অন্যান্য টিপসঃ

• টক দই ত্বকের জন্য খুবই উপকারী হলেও প্রত্যেকের ত্বকের ধরন আলাদা। এ জন্য টক দই দিয়ে তৈরি এই ফেসপ্যাকগুলো লাগানোর আগে একবার প্যাচ টেস্ট করে নিন।
• টক দইয়ে চিনি মিশিয়ে ফেস স্ক্রাবও বানাতে পারেন । এর জন্য আধা চা চামচ টক দইয়ে আধা চা চামচ চিনির গুঁড়া মিশিয়ে মুখে স্ক্রাব করুন । সপ্তাহে দুবার এটি লাগান।
• আপনার ত্বক বেশি তৈলাক্ত হলে টক দই ফেসপ্যাক বেশি ব্যবহার করবেন না।

এখন আপনিও টক দই দিয়ে তৈরি এই ফেসপ্যাকগুলো লাগিয়ে আপনার ত্বককে সুন্দর ও উজ্জ্বল করতে পারেন।

আরো জানুনঃ

5/5 - (19 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published.