মাত্র ৩ টি সহজ টিপসে ঠোঁটের বলিরেখা দূর করুন

বার্ধক্যের লক্ষণগুলো আমাদের শরীরের প্রতিটি অংশ থেকে দৃশ্যমান হয়, এমনকি তা আমাদের ঠোঁট হলেও। যাইহোক আমদের ঠোঁটের ত্বক খুব সূক্ষ্ম, তাই আপনি যদি কখনও নিজের ঠোঁটকে কুঁচকানো দেখতে পান তবে বিরক্ত হবেন না। শুধু বার্ধক্যজনিত কারণেই নয়, ধূমপান, অতিবেগুনী রশ্মির প্রভাব এবং আমাদের ঠোঁটের ক্রমাগত নড়াচড়ার কারণেও বলিরেখা দেখা দেয়।

ঠিক আছে, কারণ যাই হোক না কেন প্রথমত, আপনার ধূমপান ত্যাগ করা উচিত, কারণ এটি থেকে যে বলিরেখা আসে তা খুব দৃশ্যমান এবং এগুলি থেকে মুক্তি পাওয়া সহজ নয়। আমাদের উল্লেখিত এই তিনটি ধাপ যদি নিয়মিত অনুসরণ করতে পারেন তাহলে অবশ্যই নরম ও কোমল ঠোঁট পাবেন।

  1. এক্সফোলিয়েট
  2. ময়শ্চারাইজিং
  3. হাইড্রেটেড থাকুন

=> এক্সফোলিয়েট

আমরা এটি আগেও অনেকবার বলেছি এবং এটি আবার পুনরাবৃত্তি করব যে আপনার ঠোঁট এক্সফোলিয়েট করা আপনার শরীরের অন্যান্য অংশের মতোই গুরুত্বপূর্ণ। তাই প্রতি তিন দিন পর পর ঠোঁট স্ক্রাব করা গুরুত্বপূর্ণ। এটি আপনাকে শুষ্কতা থেকে মুক্তি দিতে সহায়তা করবে।

আরো পড়ুনঃ বডি স্ক্রাব ব্যবহারের নিয়ম, এলোভেরা দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়

=> ময়শ্চারাইজিং

আপনি যদি আপনার ত্বক, চুল এবং ঠোঁটকে তরুণ রাখতে চান, তাহলে প্রতিদিন সেগুলোকে ময়েশ্চারাইজ করুন। আপনার ঠোঁটে ভিটামিন ই তেল লাগান বা আপনার ঠোঁটকে নরম ও কোমল রাখতে ভ্যাসলিন লিপের মতো পুষ্টি উপাদানযুক্ত লিপবাম লাগান। এছাড়া ঠোঁটে সানস্ক্রিন লাগানোও জরুরি, যাতে সূর্যের ক্ষতিকর UV রশ্মি থেকে রক্ষা পাওয়া যায়।

আরো পড়ুনঃ 10টি কারণে ময়শ্চারাইজ করার পরেও আপনার ত্বক শুষ্ক থাকে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধির খাবার তালিকাঃ কমপ্লিট ডায়েট প্ল্যান

=> হাইড্রেটেড থাকুন

ত্বককে বাইরে থেকে হাইড্রেট করা এবং রক্ষা করার পাশাপাশি শরীরকে ভেতর থেকে হাইড্রেট করাও জরুরি। প্রতিদিন প্রচুর পানি পান করুন, আপনার ত্বককে তরুণ রাখতে ফল ও সবজি খান। আপনার ঠোঁট এবং হাত প্রথম ডিহাইড্রেশনের অভাব দেখায়। তাই পর্যাপ্ত পানি পান করুন, যাতে আপনার ঠোঁটের পাশাপাশি আপনার শরীর থেকে বলিরেখা দূরে থাকে।

রুপচর্চা বিষয়ক এমন আরও পরামর্শ পেতে অবশ্যই আমাদের ওয়েবসাইটের সাথে থাকুন।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (11 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published.