প্রতিদিন মুখে টমেটো লাগানোর উপকারিতা

মুখে টমেটো লাগানোর উপকারিতাঃ আপনি কি জানেন যে টমেটো আপনার দৈনন্দিন ত্বকের শাসনের জন্য প্রয়োজনীয় উপাদান হতে পারে যদি আপনি এটি সঠিকভাবে ব্যবহার করতে জানেন? কারণ এই রসালো লাল ফলটি ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর যা আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করতে সাহায্য করে এবং আপনার ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্যও ভালো।

আপনার দৈনন্দিন ত্বক পরিচর্যা ব্যবস্থায় টমেটো অন্তর্ভুক্ত করতে চান? এটি ব্যবহার করার সঠিক উপায় জানতে পোস্টটি পড়ুন।

ত্বকে লাগালে টমেটোর অনেক উপকারিতা রয়েছে। আপনি হয় টমেটোর রস, ম্যাশ করা টমেটো, টমেটোর পাল্প ব্যবহার করতে পারেন বা ত্বকের জন্য ভালো অন্যান্য উপাদান দিয়ে টমেটো মিশিয়ে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করতে পারেন।

মুখে টমেটো লাগানোর উপকারিতা

১। মৃত কোষ অপসারণ করেঃ টমেটোর রস মুখে লাগালে বেশ কিছু উপকার পাওয়া যায়। নিয়মিত প্রয়োগ করা হলে, টমেটো আপনাকে ত্বকের মৃত কোষ অপসারণ করতে সাহায্য করতে পারে । কারণ টমেটোতে অনেক এনজাইম থাকে যা প্রাকৃতিক এক্সফোলিয়েটর হিসেবে কাজ করে। আপনি আপনার মুখের জন্য মৃদু এক্সফোলিয়েটর হিসাবে চিনির সাথে টমেটো ব্যবহার করতে পারেন।

বিঃদ্রঃ টমেটোতে অ্যাসিড রয়েছে, তবে এগুলি ত্বকের জন্য হালকা, তাই আপনার সংবেদনশীল ত্বক থাকলেও আপনি এটি নিরাপদে ব্যবহার করতে পারেন।

২। ব্রণ নিয়ন্ত্রণ করেঃ টমেটো ভিটামিন সি, এ এবং কে সমৃদ্ধ। এছাড়াও, এটি অ্যাসিডিক, যা আপনার ত্বককে গভীরভাবে পরিষ্কার করার সময় ত্বকের পিএইচ বজায় রাখতে সাহায্য করে। ব্রণ-প্রবণ ত্বকে নিয়মিত টমেটোর প্রয়োগ ব্রণ ব্রেকআউট প্রতিরোধে সাহায্য করতে পারে।

৩। তেল কমাতেঃ আপনার যদি তৈলাক্ত ত্বক থাকে তবে সপ্তাহে তিনবার আপনার মুখে কাঁচা টমেটো ঘষে দেখুন। পাঁচ থেকে দশ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। মসৃণ, উজ্জ্বল তেল-মুক্ত ত্বকের জন্য এটি নিয়মিত করুন।

টিপসঃ একটি টমেটো অর্ধেক করে কেটে মুখে ঘষে নিন। 10-15 মিনিটের জন্য রেখে দিন এবং পরে সাধারণ পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। তেলমুক্ত মসৃণ ত্বকের জন্য এটি নিয়মিত করুন।

৪। ত্বক উজ্জ্বল করার জন্যঃ টমেটো একটি চমৎকার ত্বক উজ্জ্বলকারী এজেন্ট হিসেবে কাজ করে। সেরা ফলাফলের জন্য একটি টমেটোর পাল্প, দুই চামচ ফুলার আর্থ এবং এক চা চামচ তাজা পুদিনা পেস্ট মিশিয়ে নিন। আপনার মুখে মিশ্রণটি লাগান এবং এটি শুকানো পর্যন্ত রেখে দিন। ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে শুকিয়ে নিন। আপনি ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত প্রতি সপ্তাহে একবার এই প্রক্রিয়াটি পুনরাবৃত্তি করুন।

৫। অ্যান্টি ট্যানিং এজেন্ট হিসাবেঃ ট্যানড ত্বকের বিপরীতে টমেটো চমৎকার। দুই টেবিল চামচ টমেটোর পাল্পের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস এবং এক চা চামচ দই মিশিয়ে আপনার ফেসপ্যাক তৈরি করুন। ভালো করে মেশান, এবং মুখে লাগান। 15-20 মিনিট রেখে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন।

৬। উজ্জ্বল মুখের জন্যঃ উজ্জ্বল ত্বকে হলুদের প্রভাব সর্বজনবিদিত। টমেটোর সাথে হলুদ এবং চন্দন মিশিয়ে খেলে দারুণ ফল পাওয়া যায়। একটি টমেটো নিন, ¼ চামচ হলুদ গুঁড়ো এবং এক চা চামচ চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। একটি পেস্ট তৈরি করুন এবং মুখে সমানভাবে লাগান। 15 মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

৭। ছিদ্র শক্ত করতে সাহায্য করেঃ যখন ছিদ্রগুলি খুলে যায়, তারা ময়লা, ব্যাকটেরিয়া ইত্যাদি সহ প্রচুর দূষককে আকর্ষণ করে। টমেটো ছিদ্রগুলিকে শক্ত করতে প্রাকৃতিক উপাদান হিসাবে কাজ করে।

আপনি কি জানেন?
এক চা চামচ টমেটোর রসের সাথে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ব্যবহার করুন। ভালো করে মিশিয়ে মুখে লাগান। 5-10 মিনিটের জন্য ছেড়ে দিন এবং ভালভাবে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের ছিদ্র শক্ত করতে সাহায্য করবে ।

৮। রোদে পোড়া রোগের চিকিৎসা করেঃ রোদে পোড়া দাগ দূর করতে টমেটো চমৎকার ভাবে কাজ করে। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং ভিটামিন এ রয়েছে যা ত্বককে প্রশমিত করতে এবং ট্যান দূর করতে সাহায্য করে। একটি গবেষণায় দেখা গেছে যে টমেটো পেস্টে প্রচুর পরিমাণে লাইকোপিন রয়েছে যা রোদে পোড়া প্রতিরোধ করে।

৯। খিটখিটে ত্বককে প্রশমিত করেঃ টমেটোতে থাকা অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি যৌগ খিটখিটে ত্বকের জন্য ভালো। টমেটোর বিটা ক্যারোটিন, ভিটামিন সি এবং ভিটামিন ই হল মূল উপাদান যা ত্বকে প্রশান্তিদায়ক প্রভাব ফেলে। একটি গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে যে টমেটোতে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে যা ত্বকের প্রদাহ দূর করতে সাহায্য করে।

১০। বার্ধক্যের লক্ষণ কমায়ঃ চারপাশে এত দূষণের সাথে, অকাল বার্ধক্য সাধারণ। অকাল বার্ধক্যের সাধারণ লক্ষণগুলির মধ্যে রয়েছে দাগ, কালো বৃত্ত, বলিরেখা , দাগ ইত্যাদি। টমেটোর ভিটামিন ডি উপাদান বার্ধক্যের প্রাথমিক লক্ষণগুলি কমাতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুনঃ টমেটোর উপকারিতা ও অপকারিতা এবং খাওয়ার নিয়ম

মুখে টমেটো লাগানোর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

টমেটো ত্বকের জন্য ভালো হলেও কিছু প্রভাব থাকতে পারে, বিশেষ করে যদি আপনার ত্বকে অ্যালার্জি হয় বা ইতিমধ্যেই ক্ষত হয়। এছাড়াও, টমেটো অম্লীয়, তাই অত্যধিক টমেটো আপনার ত্বককে জ্বালাতন করতে পারে।

• আপনার মুখে টমেটো লাগানোর পরে যদি আপনি জ্বালা অনুভব করেন তবে অবিলম্বে এটি ব্যবহার বন্ধ করুন।
• টমেটো প্রয়োগ করার পরে আপনি যদি লালভাব, খোসা ছাড়ানো বা ত্বকে জ্বালা অনুভব করেন তবে এটি ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন এবং একজন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করুন।
• আপনার যদি ইতিমধ্যেই ত্বকে ফুসকুড়ি থাকে তবে টমেটো ব্যবহার করলে জ্বালাপোড়া হতে পারে।

কীভাবে মুখে টমেটো লাগাবেন?

আপনি একটি কাঁচা টমেটো কেটে সরাসরি মুখে লাগাতে পারেন। অথবা আপনি বাড়িতে একটি ফেসপ্যাক তৈরি করে আপনার ত্বকে লাগাতে পারেন। মুখে টমেটো লাগানোর অনেক উপকারিতা রয়েছে এবং আপনি যখন এটি ফেসপ্যাক হিসাবে লাগান তখন এর উপকারিতা বহুগুণ।

টমেটো এবং মধু ফেস প্যাকঃ ত্বকে মধুর অনেক ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে। টমেটোর সাথে মিশিয়ে খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। আপনার যা দরকার তা হল দুই টেবিল চামচ নিষ্কাশিত টমেটোর পাল্প এবং এক টেবিল চামচ মধু। দুটি উপাদান ভালো করে মিশিয়ে মুখে সমানভাবে লাগান। 10-15 মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। নরম এবং কোমল ত্বকের জন্য সপ্তাহে দুবার এটি পুনরাবৃত্তি করুন।

টমেটো এবং পেঁপের ফেসপ্যাকঃ তাড়াতাড়ি ত্বকের বার্ধক্য রোধ করার জন্য এটি একটি চমৎকার ফেসপ্যাক। এটি দাগ হালকা করতে এবং ব্রণ কমাতেও সাহায্য করে। ব্যবহার করতে, দুই টেবিল চামচ টমেটোর পাল্পের সাথে দুই টেবিল চামচ পেঁপে মিশিয়ে নিন। একটি ঘন পেস্ট তৈরি করুন এবং আপনার ত্বকে লাগান। এটি শুকানোর জন্য 15 মিনিটের জন্য রাখুন। ধুয়ে ফেলুন এবং সপ্তাহে দুবার এটি পুনরাবৃত্তি করুন।
আপনার মুখে টমেটো ব্যবহার করার সেরা উপায়

কতবার মুখে টমেটো লাগাতে হবে?

আপনি আপনার সুবিধা অনুযায়ী দিনের যে কোনও সময় আপনার মুখে টমেটো লাগাতে পারেন। তবে বিশেষজ্ঞরা পরামর্শ দেন যে, আপনি যখন ঘরে থাকেন তখন টমেটো ব্যবহার করুন। টমেটোর রস সারারাত মুখে রেখে দিতে পারেন।

যেহেতু টমেটোতে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে, তাই টমেটো লাগানোর পরপরই সূর্যের আলোতে নিজেকে উন্মুক্ত করে, ফাইটোফোটোডার্মাটাইটিস নামে পরিচিত একটি প্রদাহজনক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। এটি লালভাব এবং ফোলা এবং কিছু ক্ষেত্রে ফোসকা দ্বারা চিহ্নিত করা হয়। এছাড়াও, আপনি যদি রোদে বাইরে সময় কাটানোর পরিকল্পনা করছেন তবে আগের রাতে টমেটো ব্যবহার করা এড়িয়ে চলুন।

মুখে টমেটো ব্যবহার সম্পর্কিত প্রায়শ জিজ্ঞাস্য প্রশ্নাবলী

আপনি কি প্রতিদিন আপনার মুখে টমেটো ঘষতে পারেন?

হ্যাঁ। প্রতিদিন মুখে টমেটো ঘষে ছিদ্র শক্ত করতে সাহায্য করে। টমেটো প্রাকৃতিক অ্যাস্ট্রিনজেন্ট হিসেবেও কাজ করে যা ময়লা ও তেল দূরে রাখতে সাহায্য করে।

দিনে কতবার আপনি আপনার মুখে টমেটো লাগাতে পারেন?

বিশেষজ্ঞরা সেরা ফলাফলের জন্য সপ্তাহে তিনবার টমেটো ব্যবহার করার পরামর্শ দেন।

মুখে টমেটো লাগানো ভালো না খারাপ?

যদিও টমেটো অ্যাসিডিক, এটি খুব হালকা এবং যেকোনো ত্বকে ব্যবহার করা নিরাপদ। কিন্তু, টমেটো লাগানোর সময় নম্র হোন, জোরে ঘষবেন না, কারণ এটি ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।

কতক্ষণ আপনার মুখে টমেটো লাগিয়ে রাখা উচিত?

আপনি টমেটোর রস, টমেটোর সজ্জা, বা টমেটো-ইনফিউজড ফেস প্যাক ব্যবহার করছেন না কেন, সেরা ফলাফলের জন্য এটি 15-20 মিনিটের জন্য রেখে দেওয়াই যথেষ্ট।

উপসংহার

তাহলে আপনি মুখে টমেটো লাগানোর উপকারিতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারলেন। টমেটো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ভিটামিনে ভরপুর থাকে এবং নিয়মিত ত্বকে লাগালে এর অনেক উপকার পাওয়া যায়। তবে টমেটো অ্যাসিডিক, তাই এটি পরিমিতভাবে ব্যবহার করা উচিত। এছাড়াও, টমেটো ব্যবহার করার পরে যদি কোনও অস্বস্তি হয় তবে আপনার অবিলম্বে আপনার চর্মরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করা উচিত।

5/5 - (18 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published.