এন্টি এজিং ফেসপ্যাকঃ বয়সের তুলনায় নিজেকে তরুণ দেখান | Food & Fitness

এন্টি এজিং ফেসপ্যাকঃ বয়সের তুলনায় নিজেকে তরুণ দেখান

যদি ত্বকে ঢিলেঢালা ভাব থাকে বা ত্বকের উজ্জ্বলতা কমে যায়, তাহলে বিশেষজ্ঞদের বলা এই এন্টি এজিং ফেসপ্যাক গুলো একবার ব্যবহার করে দেখতেই হবে।

সবাই তাদের বয়সের চেয়ে কম দেখতে চায়, বিশেষ করে নারীরা তাদের ত্বকের ব্যাপারে অনেক সচেতন। এমন পরিস্থিতিতে বার্ধক্যের পাশাপাশি ত্বকের পরিবর্তনও মুখের সৌন্দর্যে প্রভাব ফেলে। বিশেষ করে কুঁচকে যাওয়া, ত্বক ঢিলা হয়ে যাওয়া এবং বার্ধক্যের ছাপ পড়ে যাওয়া বড় সমস্যা। এই সব সমস্যা কমানো গেলেও এ থেকে মুক্তি পাওয়া খুবই কঠিন। এমন পরিস্থিতিতে আগে থেকেই আপনার ত্বকের সঠিক যত্ন নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এ বিষয়ে আমরা কথা বলেছি একজন বিউটি এক্সপার্টের সঙ্গে। তিনি বলেছেন, ‘৩০ বছর পার হওয়ার পর মহিলাদের ত্বকের বিশেষ যত্ন নেওয়া উচিত। এর প্রধান কারণ হল বার্ধক্যের সাথে সাথে হরমোনের পরিবর্তন হয়, যা ত্বকে প্রভাব ফেলে। এটি একটি প্রাকৃতিক প্রক্রিয়া, তাই এটি বন্ধ করা যায় না, তবে এই সময়ে আপনার ত্বকের সঠিক যত্ন নিলে, আপনি এটিকে কিছুটা হলেও আক্রান্ত হওয়া থেকে বাঁচাতে পারেন।

তিনি ঘরোয়া কিছু এন্টি এজিং ফেসপ্যাক এর কথাও বলেছেন। এগুলো তৈরি করার জন্য, সমস্ত উপাদান আপনি ঘরে বসেই পাবেন। তো চলুন বলি ত্বক নরম ও তারুণ্য ধরে রাখতে ঘরে বসেই কী করতে পারেন-

কফির এন্টি এজিং ফেসপ্যাক

উপাদান
• 1 চা চামচ কফি
• ১ চা চামচ মধু
• ১/২ চা চামচ লেবুর রস

পদ্ধতি
• একটি পাত্রে উপরে উল্লিখিত সমস্ত উপাদান মেশান।
• এবার এই মিশ্রণটি মুখে স্ক্রাব করার সময় লাগান এবং তারপর ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিন।
• তারপর স্বাভাবিক পানি দিয়ে মুখ ধুতে পারেন।
• এই এন্টি এজিং ফেসপ্যাক অবশ্যই সপ্তাহে ২ দিন ব্যবহার করুন, ভালো ফল দেখতে পাবেন।

ত্বকের জন্য কফির উপকারিতা

• এই এন্টি এজিং ফেসপ্যাক ত্বকে রক্ত সঞ্চালন উন্নত করতে খুবই সহায়ক। রক্ত সঞ্চালন ভালো থাকলে ত্বকের রংও কিছুটা ভালো হয়।
• কফিও ত্বককে কিছুটা নরম করে। শুধু তাই নয়, সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করার ক্ষমতাও কফিতে রয়েছে।
• কফিও ত্বকে উজ্জ্বলতা আনে এবং ত্বকের দাগও হালকা হতে শুরু করে।
• কফিতে অ্যান্টি-এজিং বৈশিষ্ট্যও রয়েছে, যা ত্বককে টানটান করে এবং কোলাজেন বাড়ায়।

সতর্কতাঃ
• চোখের কাছে এই ফেসপ্যাক দিয়ে স্ক্রাব করবেন না।
• আপনার মুখে ব্রণ থাকলে কফির সঙ্গে অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে লাগান এবং ভুল করেও ত্বক স্ক্রাব করবেন না।

আরো পড়ুনঃ এলোভেরার উপকারিতা ও অপকারিতা, এলোভেরা দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়, এলোভেরা দিয়ে মুখের যত্ন নেয়ার নিয়ম

তিসি বীজের ফেসপ্যাক

উপাদান
• 1 কাপ তিসি বীজ
• 2 কাপ পানি
• 1 টেবিল চামচ লেবুর রস
• 1 টি ভিটামিন-ই ক্যাপসুল

পদ্ধতি
• প্রথমে তিসির বীজ পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন।
• এতে করে পানি ঘন হবে এবং তিসির জেল বের হয়ে আসবে।
• এবার এই জেলে লেবুর রস ও ভিটামিন-ই ক্যাপসুল পাংচার করে রাখুন।
• এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে ১৫ থেকে ২০ মিনিট রেখে দিন।
• সবচেয়ে ভালো হবে আপনি রাতে ঘুমানোর আগে ঘরে তৈরি এই জেলটি লাগান।

ত্বকের জন্য তিসি বীজের উপকারিতা

Flaxseed জেল ত্বকের শুষ্কতা দূর করে। বলিরেখার সমস্যা শুধু শুষ্ক ত্বকেই দেখা যায়। তাই শুষ্ক ত্বককে ময়েশ্চারাইজ করা খুবই জরুরি। ফ্ল্যাক্সসিড জেল ত্বককে উজ্জ্বল করে এবং দাগও কমায়।

সতর্কতাঃ আপনার যদি খুব সংবেদনশীল ত্বক থাকে তবে আপনার ফ্ল্যাক্সসিড জেল প্রয়োগ করা উচিত নয়।

ডিম এবং মুলতানি মাটির ফেসপ্যাক

উপাদান
• 1 চা চামচ মুলতানি মাটি
• ১ চা চামচ ডিমের সাদা অংশ
• 1/2 চা চামচ মধু

পদ্ধতি
• আপনার যদি তৈলাক্ত ত্বক হয়, তাহলে আপনি উপরে উল্লিখিত সমস্ত উপাদান মিশিয়ে ঘরে বসেই এন্টি এজিং ফেসপ্যাক তৈরি করে নিন।
• এই মিশ্রণটি ব্রাশের সাহায্যে মুখে লাগান।
• 15 মিনিট শুকাতে দিন এবং তারপর জল দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।
• ত্বক শুষ্ক হলে মুলতানি মাটির পরিবর্তে বেসন ব্যবহার করতে হবে।

ত্বকের জন্য ডিমের সাদা অংশের উপকারিতা

ডিমের সাদা অংশ ত্বকে বিভিন্ন উপায়ে ব্যবহার করা যেতে পারে এবং এটি ত্বকে বার্ধক্যের লক্ষণগুলিকে তাড়াতাড়ি দেখাতে বাধা দেয়। যদি আপনার ত্বক মরা চামড়ার স্তরে আবৃত থাকে, তাহলে ডিমের সাদা অংশ তা দূর করার জন্য ভালো কাজ করে। তাছাড়া ডিমের সাদা অংশ প্রাকৃতিক এক্সফোলিয়েটর হিসাবে কাজ করে।

সতর্কতাঃ এই ফেসপ্যাক লাগানোর পর ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন, এছাড়াও এই ফেসপ্যাকটি লাগিয়ে গরম জায়গায় বসবেন না। এই ফেসপ্যাক লাগানোর পর আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করুন।

আরো পড়ুনঃ মুলতানি মাটি দিয়ে ফর্সা হওয়ার উপায়, ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ানোর জন্য সেরা ১০টি ফল, 10টি কারণে ময়শ্চারাইজ করার পরেও আপনার ত্বক শুষ্ক থাকে

দ্রষ্টব্য- আপনার ত্বক যদি সংবেদনশীল হয়, তবে আপনার ত্বক বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ করার পরেই উপরে উল্লিখিত যে কোন এন্টি এজিং ফেসপ্যাক ব্যবহার করা উচিত।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (25 Reviews)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *