নাইট ক্রিম ব্যবহারের নিয়ম, উপকারিতা ও অপকারিতা

আমাদের ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখার জন্য এবং ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রাখতে আমরা বিভিন্ন ধরনের প্রোডাক্ট বা ক্রিম ব্যবহার করে থাকি। বেসিক ময়েশ্চারাইজার থেকে শুরু করে এসেন্স, টোনার, সিরাম, ফেসিয়াল ওয়েল সহ নানাবিধ প্রোডাক্ট নিত্যদিন আমরা ব্যবহার করে আসছি। ত্বকের ময়েশ্চারাইজার সমূহ দুইটি ফর্মে পাওয়া যায় নাইট ক্রিম এবং ডে ক্রিম। এছাড়াও একটি নির্দিষ্ট মশ্চোরাইজার আপনি দিনে এবং রাতে ও ব্যবহার করতে পারেন। তাহলে প্রশ্ন আসতে পারে দিন এবং রাতের জন্য আলাদা আলাদা মশ্চারাইজার এর প্রয়োজন হবে কেনো?

আমাদের ত্বক সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসলে এর নানা ধরনের ক্ষতি হয়ে থাকে। যেমন ত্বকে ছোপ ছোপ কালো দাগ পড়ে, মেছতার দাগ পড়তে পারে এবং ত্বক তার উজ্জ্বলতা হারায়। তাই বেশিরভাগ ডে ক্রিমে SPF যুক্ত থাকে। অপরদিকে রাতের বেলা ঘুমানোর আগে আমরা স্কিনে কোন সমস্যা থাকলে তা দূর করার জন্য নানা প্রোডাক্ট ব্যবহার করে থাকি। তাই নাইট ক্রিমে সেরকমই কিছু উপাদান থাকে যা ত্বকের ভিতরে যেয়ে ত্বককে ভিতর থেকে রিপেয়ার করে। যাদের ত্বকে খুব একটা সমস্যা নেই, তাদের এভাবে আলাদা করে নাইট ক্রিম বা ডে ক্রিম ব্যবহার না করলেও চলে।

নাইট ক্রিম কেনো ব্যবহার করবেন?

অনেকেই মনে করেন নাইট ক্রিম মানেই ত্বক ফর্সাকারী ক্রিম। এবং এই ধারণা অনেকটা সঠিক ও।ত্বক ফর্সাকারী ক্রিম হিসেবেও নাইট ক্রিম বিক্রি হয়। কিন্তু সেসব ক্রিম ব্যবহার করা উচিত নয়।যেসব উপাদান দিয়ে ত্বক ফর্সাকারী নাইট ক্রিম বানানো হয় সেগুলো ত্বকের জন্য অনেক ক্ষতিকর। তাই সেসব ক্রিম ব্যবহার না করে বরং ভিটামিন সি এবং কোলাজেন সমৃদ্ধ নাইট ক্রিম ব্যবহার করা উচিত।

সময়ের সাথে সাথে যখন আমাদের বয়স বাড়তে থাকে তখন আমাদের ত্বকের কোলাজেন প্রোডাকশন অনেক কমে যায়। এই কোলাজেন প্রোডাকশন ব্যালেন্স করার জন্যই ত্বকে কোলাজেন সমৃদ্ধ ক্রিম ব্যবহার করতে হয়।

অপরদিকে যারা অনেক বেশি সূর্যের আলোতে থাকেন তাদের ত্বকের উজ্জলতা অনেক কমে যায়। এবং ত্বকে ব্রণ এবং ছোপ ছোপ দাগের সৃষ্টি হয়ে থাকে। এসব থেকে বাঁচার জন্য এবং ত্বককে আরো বেশি উজ্জ্বল করতে ভিটামিন সি জাতীয় ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

এই নাইট ক্রিম গুলো ত্বকের জন্য ভালো। কিন্তু এগুলো ব্যবহার এ কিছু সতর্কতা অবলম্বন করতে হয়।যেহেতু এটি নাইট ক্রিম সেহেতু এই ক্রিম দিনের বেলা ব্যবহার না করাই ভালো। দিনে এই ক্রিম গুলো ব্যবহার করে সূর্যের আলোতে গেলে অনেক সময় তা বিভিন্ন বিক্রিয়া করে ত্বকে র‍্যাশ, এলার্জি বা ব্রণের সৃষ্টি করতে পারে।

যাদের ত্বক সেনসিটিভ তাদের দিনের বেলা এই ক্রিমগুলো ব্যবহার করা উচিত নয়। তাই বলেই এসব ক্রিম নাইট ক্রিম হিসেবে বিক্রি এবং ব্যবহৃত হয়। সঠিক নিয়মে ব্যবহার এর মাধ্যমে এই নাইট ক্রিম এর সুফল বা উপকারিতা লাভ করা সম্ভব।

আরো পড়ুনঃ সানস্ক্রিন ক্রিম ব্যবহারের নিয়ম, উপকারিতা ও অপকারিতা, 10টি কারণে ময়শ্চারাইজ করার পরেও আপনার ত্বক শুষ্ক থাকে

নাইট ক্রিম ব্যবহারের সঠিক নিয়ম

১. নাইট ক্রিম ব্যবহার এর পূর্বে এর উদ্দেশ্য টি আপনার কাছে ক্লিয়ার করুন। ত্বক ফর্সাকারী নাইট ক্রিম ত্বকের জন্য দীর্ঘ মেয়াদি ক্ষতির কারণ হতে পারে। তাই সেসব ক্রিম ব্যবহার থেকে দূরে থাকুন।

২. নাইট ক্রিম ব্যবহার শুরু করার আগে অবশ্যই একটি সানস্ক্রিন এবং ময়েশ্চারাইজার কিনে নিবেন।

৩. ব্যবহার এর পূর্বে অবশ্যই প্যাচ টেস্ট করে নিবেন। কানের একটু নিচে বা হাতের উপরিভাগে।কোলাজেন বা ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ক্রিম হলে হাতের উপরিভাগেই প্যাচ টেস্ট করুন।

৪. ভিটামিন সি সমৃদ্ধ নাইট ক্রিম ব্যবহার করলে অবশ্যই সকালে ঘুম থেকে উঠে তা ফেইসওয়াশ দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন। এবং একটি মশ্চারাইজার ব্যবহার করে এর ওপর সানস্ক্রিন ব্যবহার করে নিন।

৫. নাইট ক্রিম ব্যবহার এর পূর্বে চাইলে টোনার সিরাম ব্যবহার করে নিতে পারেন।

৬. ভিটামিন সি অথবা কোলাজেন সমৃদ্ধ নাইট ক্রিম ব্যবহার করলে এর সাথে যেসব টোনার বা সিরাম ব্যবহার করছেন তার উপাদান সমূহ যাচাই করে নিবেন। কোনো এক্টিভ উপাদান সে প্রোডাক্ট গুলোয় আছে কিনা তা জেনে নিবেন। এবং একই সাথে ব্যবহার করা প্রতিটি উপাদান একে অন্যের সাথে ক্লেশ করছে কিনা তা জেনে ব্যবহার করলেই নাইট ক্রিম ব্যবহার এর মাধ্যমে প্রকৃতপক্ষে ত্বক উজ্জ্বল করা সম্ভব হয়।

৭. দীর্ঘ সময় ধরে যেমন ১ থেকে ২ বছর পর্যন্ত এক টানা নাইট ক্রিম ব্যবহার করবেন না। ৬ মাস অন্তর অন্তর কিছু মাস বিশ্রাম দিয়ে তারপর আবার ব্যবহার করতে পারেন।

কোন নাইট ক্রিম ব্যবহার করবো?

বাজারের বেশিরভাগ নাইট ক্রিম অনেক বেশি কেমিক্যাল দিয়ে বানানো হয়ে থাকে। সেসব নাইট ক্রিম মানুষ বহু যুগ ধরে ব্যবহার করে আসছে কিন্তু দুঃভাগ্যজনক হলেও সত্যি যে, এসব ক্রিমে থাকে টক্সিক ইনগ্রিডিয়েন্ট, প্যারাবেন, আর্টিফিশিয়াল কালার্স, ক্ষতিকর প্রিজারভেটিভ, আর্টিফিশিয়াল ফেগরেন্স ইত্যাদি। এসব উপাদান ত্বকের মারাত্মক ক্ষতি করতে পারে।

এমনকি বাজারে বহুল পরিচিত হারবাল নাইট ক্রিম গুলোতেও সম্পূর্ণ উপাদান সমূহের লিস্ট দেয়া থাকেনা। এদের উপর ও পূর্ণ বিশ্বাস আনা মুশকিল। তাহলে আমরা কি নাইট ক্রিম ব্যবহার করবো এটা একটা প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

কিছু কিছু ব্র্যান্ড আছে যারা প্রকৃতপক্ষে অর্গানিক নাইট ক্রিম বাজারে নিয়ে এসেছে। যাদের সুস্পষ্ট উপাদান লিস্ট দেয়া আছে এবং যেগুলো ক্লিনিক্যালি টেস্টেড। এর মধ্যে কিছু ভারতীয়, এবং কিছু ইন্টারন্যাশনাল ব্র্যান্ড রয়েছে। যেমন: মামা আর্থ(Mamaearth), এরোমা ম্যাজিক এর Vitamin E night cream, বায়োএক্টিভ (Bioactive Intense night cream) এর নাইট ক্রিম।

নাইট ক্রিম ব্যবহার এর উপকারিতা

১. নাইট ক্রিম ত্বককে ভিতর থেকে স্বাস্থ্যকর বানাতে সাহায্য করে।
২. ত্বকের ময়েশ্চার এবং আদ্রতা বাড়াতে সাহায্য করে।
৩. ত্বকে বলিরেখা পড়তে দেয়না।
৪. সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মির জন্য ত্বকের যে ক্ষতি হয়,তা ভিতর থেকে রিপেয়ার করে।
৫. ত্বককে প্রয়োজনীয় পুষ্টি প্রদান করবে।
৬. ত্বকের রক্ত সঞ্চালন বাড়াবে।
৭. ত্বক থেকে কালো দাগ দূর করবে।
৮. এজিং সাইন যেমন চামড়া ঝুলে পড়া রোধ করে ত্বক টান টান করবে।
৯. ত্বককে ভিতর থেকে উজ্জ্বল করবে।

নাইট ক্রিম এর কিছু ক্ষতিকারক দিক বা অপকারিতা

আজকাল বাজারে যেসব নাইট ক্রিম রয়েছে তাদের বেশিরভাগ ই ত্বক উজ্জ্বল করবে বলে বা ত্বক ফর্সা করার ক্ষমতা রাখে এসব বলে বিক্রি করা হয়। প্রকৃতপক্ষে এসব কিছুই একটি ধোকা। এমন কোনো প্রোডাক্ট নেই যা আপনার ত্বককে চির জীবন এর জন্য ফর্সা করতে পারে। বরং এটি সাময়িক কিছু সময় এর জন্য আপনার ত্বকের মেলানিন কোষ এবং কিছু গুরুত্বপূর্ণ কোষ কে মেরে ফেলে, ফলে আপনার ত্বক কিছুদিন এর জন্য ফর্সা দেখায়। কিন্তু যখনই আপনি সেসব প্রোডাক্ট ব্যবহার ছেড়ে দিবেন আপনার ত্বক আগের চেয়েও খারাপ হয়ে যাবে। এমনকি ত্বকে জটিল কিছু সমস্যার সৃষ্টি হয়ে থাকে।

১. এটি দীর্ঘদিন ব্যবহার এ ত্বকের মেলানিন কোষ ক্ষতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এবং ত্বক যখন সরাসরি সূর্যের আলোর সংস্পর্শে আসে তখন ত্বকে একটি বার্নিং সেন্সেশন হয়।
২. ত্বকে লোমের সংখ্যা বেড়ে যায়।
৩. ত্বকে ব্রণ মেছতার মতো নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়।
৪. ঘুম থেকে উঠে নিয়মিত ফেইসওয়াস দিয়ে সকালে মুখ না ধুলে রাতের ক্রিমের অবশিষ্ট অংশ ত্বকে থেকে যায়,যা দিনের আলোতে ক্ষতির কারণ হতে পারে।

ত্বককে সুস্থ রাখতে অর্গানিক উপাদান এর জুড়ি নেই। এর পাশাপাশি একটি স্বাস্থ্যকর লাইফস্টাইল মেনে চললে এবং সচেতন ভাবে প্রোডাক্ট কিনলে আপনাদের ত্বকের ক্ষতি আপনারা নিজেরাই এড়াতে পারবেন।

আরো পড়ুনঃ

5/5 - (16 Reviews)
Subna Islam
Subna Islam
Articles: 36

Leave a Reply

Your email address will not be published.