সেরা ইফতার রেসিপি সমূহ

অন্যান্য মাসের থেকে রমজান মাসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য অনেক। এ মাসে আমরা যেকোনো ইবাদত এর বিনিময়ে ৭০গুন বেশি সাওয়াব পেয়ে থাকি। রমজান মাসে কোনো ব্যক্তি যদি ১ টাকা দান করে, তবে তার আমলনামায় যোগ হবে ৭০ টাকা দান করার সাওয়াব। এছাড়াও, ১ রাকাত নামাজ আদায় করলে ৭০ রাকাত নামাজ আদায় করার ন্যায় সাওয়াব পাওয়া যাবে। রমজান মাসে একটি রাত রয়েছে, যেটি হাজার মাসের তুলনায় উত্তম। রমজান মাসে রোজা রাখা ফরজ। প্রত্যেক সাবালেগ পুরুষ এবং নারীর উপরে রোজা রাখা ফরজ।

রমজান মাসে রোজা রাখতে হলে আমাদেরকে শেষ রাতে সেহেরি খেতে হয়। সুবহে সাদিকের আগে সেহেরি খেয়ে রোজা রাখার নিয়ত করার পর সুবহে সাদিক থেকে শুরু করে সূর্যাস্ত অব্দি পানাহার এবং সব ধরণের ইন্দ্রিয় তৃপ্তি থেকে বিরত থাকতে হয়। সূর্যাস্ত হয়ে গেলে ইফতারি করে আমাদের রোজা ভাঙ্গতে হয়। রমজান মাসে ইফতারিকে লক্ষ্য করে আমাদের দেশে অনেক ধরণের ইফতারির রেসিপি দেখা যায়। অনেকেই বিভিন্ন মুখরোচক খাবার ইফতারিতে খেয়ে থাকেন। আজকের এই পোস্টে আমরা এমন কিছু সেরা ইফতার রেসিপি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

এই পোস্টে সেরা ইফতার রেসিপি সমূহ সম্পর্কে জানতে পারবেন। মজাদার এই ইফতারি রেসিপিগুলো কিভাবে বানাতে হয়, কি কি উপাদান প্রয়োজন, সবকিছুই পেয়ে যাবেন এই পোস্টে। তো চলুন, শুরু করা যাক।

সেরা ইফতার রেসিপি সমূহ

মজাদার ঝটপট ইফতার রেসিপি হিসেবে আপনি নিম্নোক্ত খাবারগুলো রাখতে পাবেন।

  • চিড়ার চপ
  • প্রস্তত প্রণালী
  • স্পেশাল আলুর চপ
  • মচমচে পিঁয়াজু
  • বেগুনি
  • ছোলা বুট

তো চলুন, উপরোক্ত রেসিপিগুলো কিভাবে বানাতে হয়, উপকরনসমূহ এবং প্রস্তুত প্রণালী সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেয়া যাক।

চিড়ার চপ :

সেরা ইফতার রেসিপি হিসেবে ইফতারির তালিকায় রাখতে পারেন চিড়ার চপ। এই খাবারটি খেতে খুবই মজাদার এবং সুস্বাদু। চিড়ার চপ বানাতে যেসব উপকরণ প্রয়োজন, সেগুলো নিম্নে উল্লেখ করে দিলাম।

  • চিড়া – ১কাপ
  • গোল মরিচ গুড়া – পছন্দ মতন
  • পিয়াজ কুচি – ১/২ কাপ
  • কাচা মরিচ কুচি – পছন্দ মতন
  • ডিম – ১ টা
  • তেল – চপ ভাজার জন্য পরিমাণমত
  • ধনে পাতা কুচি – প্রয়োজনমত
  • চালের গুড়া – ১ টেবিল চামচ (মচমচে করার জন্য, যদি আপনি চান)
  • লবণ – স্বাদ মতন

উপরোক্ত উপাদানগুলো দিয়ে সহজেই বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারবেন চিড়ার চপ। চিড়ার চপ বানানোর প্রস্তুত প্রণালী সম্পর্কে নিচে থেকে বিস্তারিত জেনে নিতে পারবেন।

চিড়ার চপ বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

চিড়াগুলো ভালো করে ধুয়ে নেয়ার পর ৫ মিনিটের মতো পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে।এরপর পানি নিংরিয়ে নিয়ে চিরাগুলো একটি বাটিতে নিতে হবে।  চিড়া থেকে সব পানি নিংরিয়ে নিবেন,একটু পানিও রাখা যাবে না।  এরপর উপরোক্ত সকল উপকরণ এক এক করে মিশাবেন। অতঃপর, মিশ্রণগুলো দিয়ে ছোট ছোট চপ এর মতো বল বানাবেন। চপগুলো একটি বাটিতে রাখবেন। ফ্রাই প্যানে অল্প তেল দিয়ে চপগুলি ভেজে নিবেন। যখন চপ গুলি বাদামি রং ধারন করবে, তখন প্লেটে তুলে রাখুন। তৈরি হয়ে গেল মজাদার চিড়ার চপ।

See also  সুস্বাস্থে ভাতের মাড়ের উপকারিতা

স্পেশাল আলুর চপ :

স্পেশাল আলুর চপ রাখতে পারেন আপনার ইফতারির তালিকায়। আলুর চপকে অনেকেই সেরা ইফতার রেসিপি বলে থাকে। আলুর চপ এবং বেগুনি নিয়ে অনেকের মাঝেই বিবাদ দেখা যায়। কারো মতে বেগুনি থেকে আলুর চপ অনেক মজাদার, কারো মতে আলুর চপ থেকে বেগুনি মজাদার। নিচে আমরা আলুর চপ এবং পরবর্তীতে মজাদার বেগুনি বানানোর রেসিপি নিয়ে আলোচনা করবো। নিম্নে দেয়া উপাদানগুলো মজাদার আলুর চপ বানাতে প্রয়োজন হবে।

  • আলু ৫০০ গ্রাম
  • গরম মশলা গুঁড়ো ১ চা চামচ
  • ডিম ১টি ফেটানো
  • কাঁচামরিচ কুচি ১ চা চামচ
  • ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ
  • ডিম ১টি সিদ্ধ করে ভর্তা করতে হবে
  • পেয়াজ বেরেস্তা করা ২ টেবিল চামচ
  • তেল ভাজার জন্য পরিমাণমতো
  • লবণ স্বাদ অনুযায়ী
  • বিস্কুটের গুঁড়ো পরিমাণমতো

স্পেশাল আলুর চপ বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

মজাদার এই ইফতারি রেসিপিটি বানাতে হলে আমাদের প্রথমেই আলু সিদ্ধ করে নিতে হবে। এরপর একটি কড়াইয়ে আলু ভর্তা, ডিমের ভর্তা, কাঁচামরিচ কুচি, গরম মশলা গুড়ো, ধনেপাতা কুচি, স্বাদ অনুযায়ী লবণ এবং পেয়াজ বেরেস্তা ইত্যাদি ভেজে নিয়ে মেখে নিতে হবে। এরপর মিশ্রণগুলো চপের মতো করে নিয়ে সেগুলো ৫ মিনিটের মতো ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। ৫ মিনিট পর ফ্রিজ থেকে বের করে ডিমের গোলায় ডুবিয়ে বিস্কুটের গুঁড়োর সঙ্গে মিশিয়ে প্লেটে রেখে দিতে হবে। ব্যাস, তৈরি হয়ে গেলো সেরা ইফতার রেসিপি আলুর চপ।

মচমচে পিঁয়াজু :

পিঁয়াজু অনেক মচমচে এবং মজাদার একটি খাবার। ইফতারির মাঝে সবাই পিঁয়াজু রাখতে পছন্দ করেন। মচমচে পিঁয়াজু বানাতে হলে নিম্নে দেয়া সকল উপাদান প্রয়োজন হবে।

  • মসুর ডাল – ১ কাপ
  • কাঁচামরিচ কুচি – ৬-৭ টা বা স্বাদমত
  • চালের গুঁড়া – ১ ও ১/২ টেবিল চামচ
  • পেঁয়াজ কুচি- ২ টা মাঝারি আকারের
  • জিরা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • হলুদ গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • আদা বাটা – ১/২ চা চামচ
  • লবণ – ৩/৪ চা চামচ বা স্বাদমত
  • তেল – ডুবো তেলে ভাজার জন্য যতটুকু লাগে
  • রসুন বাটা – ১/২ চা চামচ
  • ধনিয়া পাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ

মচমচে পিঁয়াজু বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

সেরা ইফতার রেসিপি হিসেবে পিঁয়াজু রাখতে পারেন আপনার ইফতারির তালিকায়। পিঁয়াজু বানাতে হলে মসুর ডাল ভাল করে ধুয়ে নিবেন। এরপর, ২-৩ ঘণ্টা কুসুম কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। সবথেকে ভালো হয় পুরো রাত্রি ভিজিয়ে রাখলে। এরপর পানি নিংরিয়ে নিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। একদম মিহি করে ব্লেন্ড করতে যাবেন না। একটু করে দানা রাখবেন, খেতে মজাদার হয়। ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড না করলে শীল-পাটায় বাটতে পারেন। এরপর তেল বাদে, উপরোক্ত সকল উপকরণ মিশিয়ে নিন সুন্দর করে। অতঃপর, এই মিশ্রণ গুলো আপনার সুবিধা মতো সাইজ করে ভেজে নিবেন। তৈরি হয়ে গেল, মজাদার ইফতারি রেসিপি।

See also  কার্বোহাইড্রেট জাতীয় খাবার তালিকা, এর প্রয়োজনীয়তা, উৎস, উপকারিতা, অপকারিতা

বেগুনি :

কাউকে যদি সেরা ইফতার রেসিপি সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়, তবে অধিকাংশ মানুষ বেগুনি কে সেরা ইফতার রেসিপি হিসেবে আখ্যায়িত করবেন। কারো কারো মাঝে তো বেগুনি এবং আলুর চপ নিয়ে বিতর্ক চলে। কারো মতে আলুর চপ মজাদার, কারো মতে বেগুনি সবথেকে মজাদা। তো চলুন, মজাদার এই ইফতারি রেসিপি বানাতে যেসব উপাদান প্রয়োজন, সেগুলো দেখে নেয়া যাক।

মজাদার এই ইফতারি রেসিপিটি বানাতে হলে আমাদের প্রথমেই আলু সিদ্ধ করে নিতে হবে। এরপর একটি কড়াইয়ে আলু ভর্তা, ডিমের ভর্তা, কাঁচামরিচ কুচি, গরম মশলা গুড়ো, ধনেপাতা কুচি, স্বাদ অনুযায়ী লবণ এবং পেয়াজ বেরেস্তা ইত্যাদি ভেজে নিয়ে মেখে নিতে হবে। এরপর মিশ্রণগুলো চপের মতো করে নিয়ে সেগুলো ৫ মিনিটের মতো ফ্রিজে রেখে দিতে হবে। ৫ মিনিট পর ফ্রিজ থেকে বের করে ডিমের গোলায় ডুবিয়ে বিস্কুটের গুঁড়োর সঙ্গে মিশিয়ে প্লেটে রেখে দিতে হবে। ব্যাস, তৈরি হয়ে গেলো সেরা ইফতার রেসিপি আলুর চপ।

মচমচে পিঁয়াজু :

পিঁয়াজু অনেক মচমচে এবং মজাদার একটি খাবার। ইফতারির মাঝে সবাই পিঁয়াজু রাখতে পছন্দ করেন। মচমচে পিঁয়াজু বানাতে হলে নিম্নে দেয়া সকল উপাদান প্রয়োজন হবে।

  • মসুর ডাল – ১ কাপ
  • কাঁচামরিচ কুচি – ৬-৭ টা বা স্বাদমত
  • চালের গুঁড়া – ১ ও ১/২ টেবিল চামচ
  • পেঁয়াজ কুচি- ২ টা মাঝারি আকারের
  • জিরা গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • হলুদ গুঁড়া – ১/২ চা চামচ
  • আদা বাটা – ১/২ চা চামচ
  • লবণ – ৩/৪ চা চামচ বা স্বাদমত
  • তেল – ডুবো তেলে ভাজার জন্য যতটুকু লাগে
  • রসুন বাটা – ১/২ চা চামচ
  • ধনিয়া পাতা কুচি – ২ টেবিল চামচ

মচমচে পিঁয়াজু বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

সেরা ইফতার রেসিপি হিসেবে পিঁয়াজু রাখতে পারেন আপনার ইফতারির তালিকায়। পিঁয়াজু বানাতে হলে মসুর ডাল ভাল করে ধুয়ে নিবেন। এরপর, ২-৩ ঘণ্টা কুসুম কুসুম গরম পানিতে ভিজিয়ে রাখতে হবে। সবথেকে ভালো হয় পুরো রাত্রি ভিজিয়ে রাখলে। এরপর পানি নিংরিয়ে নিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। একদম মিহি করে ব্লেন্ড করতে যাবেন না। একটু করে দানা রাখবেন, খেতে মজাদার হয়। ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড না করলে শীল-পাটায় বাটতে পারেন। এরপর তেল বাদে, উপরোক্ত সকল উপকরণ মিশিয়ে নিন সুন্দর করে। অতঃপর, এই মিশ্রণ গুলো আপনার সুবিধা মতো সাইজ করে ভেজে নিবেন। তৈরি হয়ে গেল, মজাদার ইফতারি রেসিপি।

বেগুনি :

কাউকে যদি সেরা ইফতার রেসিপি সম্পর্কে প্রশ্ন করা হয়, তবে অধিকাংশ মানুষ বেগুনি কে সেরা ইফতার রেসিপি হিসেবে আখ্যায়িত করবেন। কারো কারো মাঝে তো বেগুনি এবং আলুর চপ নিয়ে বিতর্ক চলে। কারো মতে আলুর চপ মজাদার, কারো মতে বেগুনি সবথেকে মজাদা। তো চলুন, মজাদার এই ইফতারি রেসিপি বানাতে যেসব উপাদান প্রয়োজন, সেগুলো দেখে নেয়া যাক।

  • লম্বা বেগুন ১-২টি
  • ছোলার ডালের বেসন দেড় কাপ
  • রসুন বাটা এক চা-চামচ
  • আদা বাটা এক চা-চামচ
  • চালের গুঁড়া আধা কাপ
  • মরিচ গুঁড়া আধা চা-চামচ
  • বেকিং পাউডার এক চা-চামচ
  • পেঁয়াজ বাটা এক চা-চামচ
  • লবণ পরিমাণমত
  • তেল (ভাজার জন্য) পরিমাণমত
  • হলুদ গুঁড়া আধা চা-চামচ
See also  টক দই রেসিপি কমপ্লিট টিউটোরিয়াল

বেগুনি বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

উপরোক্ত সকল উপাদান একসাথে মিশিয়ে নিন বেগুন এবং তেল বাদে। ভালো করে মাখিয়ে নিয়ে কিছুক্ষন রেখে দিন। বেগুনগুলো লবন এবং হলুদ দিয়ে মাখিয়ে রেখে দিন। এরপর কড়াইয়ে তেল গরম করে নিন। তেল গরম হয়ে গেলে বেগুনগুলো উক্ত মিশ্রণ এ দুবিয়ে ভালো করে মেখে তুলে কড়াইয়ে দিয়ে ডুবন্ত তেলে ভেজে নিন। মচমচে এবং বাদামি রং করে ভেজে নিবেন। এরপর, ভাজা হয়ে গেলে তুলে নিয়ে তেলগুলো নিংরিয়ে নিবেন। ব্যাস, তৈরি হয়ে গেল একটি সেরা ইফতার রেসিপি। পরিবেশন করুন আপনার পরিবারের সবার কাছে। 

ছোলা বুট :

সেরা ইফতার রেসিপি সমূহের মাঝে ছোলা বুট রাখতেই হবে। ছোলা বুট না থাকলে ইফতারি যেন সম্পূর্ণ ই হয় না। তো চলুন, দেখে নেয়া যাক, ছোলা বুট ভুনা বানাতে গেলে কি কি উপাদান প্রয়োজন হবে।

  • ১ কাপ ছোলা
  • ২ টি কাঁচামরিচ কুচি
  • ৩ টেবিল চামচ তেল
  • ১ চা চামচ জিরা গুঁড়ো
  • ১/৪ কাপ পেঁয়াজ কুচি
  • ২ টি টমেটো কিউব করে কাটা
  • আধা চা চামচ মরিচ গুঁড়ো
  • ১ চা চামচ আদা-রসুন বাটা
  • আধা চা চামচ গরম মসলা গুঁড়ো
  • লবণ স্বাদমতো
  • আধা চা চামচ হলুদ গুঁড়ো
  • ১ চিমটি বিট লবণ
  • ধনে পাতা কুচি ইচ্ছে
  • ২ চা চামচ ধনে গুঁড়ো
  • দেড় চা চামচ লেবুর রস

ছোলা বুট বানানোর প্রস্তত প্রণালী :

সেরা ইফতার রেসিপি ছোলা বুট ভুনা বানাতে প্রথমে ছোলা বুটগুলো সারারাত পানিতে ভিজিয়ে রাখবেন। এরপর স্বল্প পরিমাণে লবণ এবং হলুদ গুঁড়ো দিয়ে ছোলা বুটগুলো সিদ্ধ করে নিবেন । তেল গরম করে আদা, রসুন বাটা দিবেন। এরপর এগুলো নাড়াতে থাকবেন। একটু লালচে হয়ে গেলে এতে পেঁয়াজ কুচি দিবেন। পেঁয়াজ কুচি দেয়ার পর নরম হয়ে গেলে বাকী সব মসলা এক এক করে দিবেন। অতঃপর, পানি দিয়ে ভালো করে মেখে নিবেন। মসলা কষে নিয়ে টমেটো কেটে দিয়ে নেড়ে ছোলা বুট ঢেলে দিন। ভালোমতো নাড়াতে থাকুন মসলা মাখা মাখা হয়ে যাওয়া পর্যন্ত। এরপর লেবুর রস দিয়ে ভালো করে নেড়ে উপরে ধনে পাতা কুচি ছিটিয়ে নামিয়ে নিন। ব্যাস, তৈরি হয়ে গেল মজাদার ছোলা বুট।

উপরোক্ত রমজান মাসের সেরা ইফতার রেসিপি সমূহ থেকে আপনার পছন্দের রেসিপি কোনটি জানাতে ভুলবেন না। 

আরো পড়ুন: রমজানে খাদ্যাভাস: সুস্থ থাকতে বেছে নিন সঠিক খাবার

Rate this post
Subna Islam
Subna Islam
Articles: 80

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *